রাজনীতি

পাকিস্তান প্রেম দূরে রাখুন, বিএনপিকে মেনন

ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র বাংলাদেশি সমর্থকদের পাকিস্তানের পতাকা উড়ানোর পক্ষে বিএনপি যুক্তি দাঁড় করানোর চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও সংসদ সদস্য রাশেদ খান মেনন।

বিএনপিকে ‘পাকি প্রেমটা’ দূরে রাখার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।
আজ রোববার জাতীয় সংসদে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে এসব কথা বলেন মেনন। রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘আমি গতকাল (শনিবার) ফ্লোর চেয়েছিলাম একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে। কারণ এই

হাউসে ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে বিএনপির সংসদ সদস্য হারুনুর রশিদ যে বক্তব্য দিয়েছিলেন, সেটা কেবল অসত্যই নয়, তিনি তাঁর বক্তব্যে চালাকির সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর ১৯৭৪ সালের জাতিসংঘের বক্তব্যকেও টেনে এনেছিলেন। এটা গুরুত্বপূর্ণ এই

কারণে যে, গণমাধ্যমে এসেছে তিনি পাকিস্তানি ক্রিকেট দল নিয়ে কথা বলায় সংসদে হইচই হয়েছে। বরং তিনি যেটা করতে চেয়েছিলেন, সেটা হচ্ছে পাকিস্তানি পতাকার উড়ানোর পক্ষে যৌক্তিকতা দাঁড় করানোর চেষ্টা করেছিলেন। মিরপুর ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ-পাকিস্তান ম্যাচে বাংলাদেশি সমর্থকদের

পাকিস্তানি পতাকা ওড়ানো বিতর্কে গতকাল শনিবার সংসদে বিএনপির সংসদ সদস্য হারুনুর রশিদ বলেন, ‘বর্তমানে বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট টুর্নামেন্ট হচ্ছে। পাকিস্তান এবং বাংলাদেশ। পাকিস্তান ক্রিকেট টিম বাংলাদেশের সঙ্গে খেলছে। বাংলাদেশ যা-ই খেলুক না কেন, পাকিস্তানের সমর্থকেরা তাদের

পতাকা ওড়াচ্ছে। এটাকে কেন্দ্র করে একটা বিব্রতকর অবস্থা তৈরি হয়েছে। এটা নিয়ে বিদ্বেষমূলক কথা বলা হচ্ছে। এর পরিপ্রেক্ষিতেই রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘এ রকম ঘটনা এখন শুধু নয়, বাংলাদেশ সৃষ্টির পরেও হয়েছিল। ১৯৭৪ সালে পাকিস্তানের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী জুলফিকার আলী ভুট্টোর সফর ঘিরে

পরিকল্পিত ঘটনা ঘটানো হয়েছিল। আজকে আবার ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে পাকিস্তানের পতাকা উড়ানোর চেষ্টা হয়েছে।
তিনি বলেন, ‘আমাদের দুর্ভাগ্য, আজকে স্বাধীনতার ৫০ বছর পার করছি। কিন্তু আজ পর্যন্ত বিএনপি তাদের পাকিস্তান প্রেম দেখিয়েই যাচ্ছে। আজকেও বক্তৃতায় পাকিস্তান প্রেম দেখলাম।

বেগম জিয়া অসুস্থ, তাঁকে নিয়ে কথা বলতে চায় না। পাকিস্তানি সেনা কর্মকর্তা জানজুয়ার মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শোকপ্রস্তাব পাঠিয়েছিলেন। এটা তিনি পারেন না। মেনন বলেন, ‘পরিকল্পিতভাবে আমাদের গৌরব অধ্যায়কে ধ্বংস করার জন্য চক্রান্ত চলছে। এর বিরুদ্ধে আমাদের এক হতে হবে। বিএনপিকে

বলব, এখনো সময় আছে, আপনাদের পাকি প্রেমটা দূরে রাখুন। বাংলাদেশের খেলার মাঠে, খেলা নিয়ে পক্ষ-বিপক্ষ থাকবে। কিন্তু বাংলাদেশে অন্য দেশের পতাকা উড়বে না। তাঁরা উদাহরণ দিয়েছেন অন্য দেশের খেলার মাঠে বাংলাদেশের পতাকা ওড়ে। হ্যাঁ, তোলে। সেখানে কিন্তু বাংলাদেশিরা তোলে। এখানে পাকিস্তানিরা তুললে আমার কোনো কথা ছিল না। এখানে বাংলাদেশের তরুণদের বিভ্রান্ত করা হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close