শিক্ষাঈন

বাবার লাশ বাড়িতে রেখে পরীক্ষার হলে সিনথিয়া

বাবার লাশ বাড়িতে রেখে এসএসসি পরীক্ষায় বসেছে সিনথিয়া কবির নামে এক শিক্ষার্থী। আজ রোববার (১৪ নভেম্বর) নরসিংদীর পলাশে এ ঘটনা ঘটে। সিনথিয়া পরীক্ষায় অংশ নিয়ে এক হাতে চোখ মুছে চলেছেন

আর অন্য হাতে কলম চালাচ্ছে পরিক্ষার খাতায়। আর মাঝে মাঝেই ফুঁপিয়ে কেঁদে উঠছে।
এই দৃশ্য নরসিংদীর ঘোড়াশাল ডা. নজরুল বিন নূর মহসিন বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজ পরীক্ষার কেন্দ্রে। সিনথিয়ার বাবা মৃত হুমায়ূন কবির (৪৮) উপজেলার ঘোড়াশাল পৌর এলাকার পলাশ কুটিরপাড়া গ্রামের মৃত মোখলেছ সরদারের ছেলে। স্বজনরা

জানান, রোববার ভোরে হুমায়ুন কবির হার্ট অ্যাটাক করে নিজ বাড়িতে মৃত্যুবরণ করেন। বাবাকে হারানোর পর ভেঙে পড়লেও কাঁদতে কাঁদতে পরীক্ষার হলে গেছে সিনথিয়া। মেয়েকে মানুষ করার যে স্বপ্ন ছিল হুমায়ুন কবিরের, তা পূরণ করতেই স্বজনদের সান্ত্বনায় পরীক্ষা দিয়েছে সিনথিয়া। স্থানীয়রা জানান,

আজ রোববার ফজরের নামাজের পর সিনথিয়া কবিরের বাবা হ‌ুমায়ূন কবির (৪৮) মৃত্যুবরণ করেন। বাবাকে হারিয়ে অনেকটা নির্বাক হয়েও সহপাঠী ও কেন্দ্রসচিবের সহযোগিতায় ঘোড়াশাল ডা. নজরুল বিন নূর মহসিন বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজে ওই ছাত্রী এসএসসির প্রথম দিনের পদার্থ (তত্ত্বীয়) পরীক্ষায় অংশ নেয়।

জানাজায় হুমায়ূন কবিরের আত্মীয়স্বজন, প্রতিবেশী, গ্রাম ও আশপাশের এলাকার মানুষ অংশ নেন। ঘোড়াশাল ডা. নজরুল বিন নূর মহসিন বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ এবং পরীক্ষা কেন্দ্রের কেন্দ্র সচিব রিনা নাসরিন জানান,

পরীক্ষার্থী সিনথিয়া কবিরের বাবার মৃত্যুর বিষয়টি আমরা অবগত হয়েছি। তার জন্য কোনো বিশেষ ব্যবস্থায় পরীক্ষা নেওয়া হয়নি। সে সবার সঙ্গে স্বাভাবিকভাবেই পরিক্ষায় অংশ নিয়েছে। তবে ঘটনাটি খুবই হৃদয় বিদারক ছিল।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
Close