আলোচিত বাংলাদেশ

ঠাকুরগাঁওয়ে দূরপাল্লার বাসে বাড়তি ভাড়া নেয়ার অভিযোগ

ঠাকুরগাঁওয়ে গণপরিবহনে বাড়তি ভাড়া কার্যকরে প্রথম দিনেই অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের অভিযোগ উঠেছে দূরপাল্লার বাস কাউন্টার গুলোর বিরুদ্ধে। বাড়তি ভাড়ার নতুন তালিকা ছাড়াই টিকিট কাউন্টারগুলোতে

ইচ্ছেমতো অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হচ্ছে বলে অভিযোগ যাত্রীদের। তবে এ সব অভিযোগ অস্বীকার করে টিকিট কাউন্টারগুলো বলছে সরকারের নির্ধারিত দামে তাঁরা টিকেট বিক্রি করছেন। যদিও এখনও বিআরটিএ থেকে নতুন ভাড়ার চার্ট তাঁরা

পাননি। শুধুমাত্র পরিবহণ মালিকদের নির্দেশে ঢাকাগামী টিকেটে ২৫০ টাকা থেকে ৩শ টাকা পর্যন্ত বর্ধিত ভাড়া নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কাউন্টার কর্তৃপক্ষ। মঙ্গলবার শহরের বিভিন্ন পরিবহণের কাউন্টার ঘুরে এবং যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলে এমন অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা গেছে, ডিজেলের দাম লিটারে ১৫ টাকা

বাড়ানোর প্রেক্ষাপটে নতুন বাসভাড়া নির্ধারণ করে দিয়েছে সরকার। তবে বাস মালিকরা এখনো ভাড়ার তালিকা করেননি। এসময় নতুন নির্ধারিত ভাড়া নিয়ে যাত্রী ও টিকিট বিক্রেতাদের মধ্যে বাগবিতন্ডা হচ্ছে। তবে নিরূপায় হয়ে যাত্রীরা অতিরিক্ত ভাড়া দিয়েই গন্তব্যে যাত্রা করছেন। সস্ত্রীক ঢাকায় যাওয়ার উদ্দেশ্যে নাবিল কাউন্টারে দুটি টিকেট কেটেছেন ডালিম কুমার রায়। তিনি জানান, আগে

যেখানে দুজন মিলে ১ হাজার ২শ টাকা দিয়ে যেতে পারতাম, এখন ১ হাজার ৮শ টাকা দিয়ে টিকেট নিতে হলো। ক্ষোভ প্রকাশ করে এ যাত্রী বলেন, এটি আমাদের উপর জুলুম করা হচ্ছে। চট্রগ্রাম যাওয়ার জন্য শহরের নরেশ চৌহানে অবস্থিত হানিফ এন্টারপ্রাইজে টিকেট কিনতে এসেছেন সায়দুল। তিনিও ক্ষোভ জানিয়ে বলেন, হঠাৎই ডিজেলের দাম বৃদ্ধি, আর বাড়তি ভাড়ার বোঝা আমাদের জনগণের ওপর। যা যায় সবকিছু আমাদের

জনগণের ওপর দিয়েই যায়। আগে যেখানে ৯শ টাকা দিয়ে যেতাম, এখন ১১শ টাকা দিয়ে যেতে হচ্ছে। ২শ থেকে আড়াইশ টাকা পর্যন্ত বেশি চাওয়া হচ্ছে।
একাধিক যাত্রী অভিযোগ করেন, আন্তঃজেলার বাসের ভাড়া খুব একটা বেশি নেওয়া হচ্ছে না। কিন্তু দূরপাল্লার বাসে ইচ্ছামতো ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। হানিফ পরিবহনের কাউন্টার মাস্টার

সাইফুর রহমান বলেন, ঢাকাগামী টিকেট ১ হাজার টাকা বিক্রির নির্দেশ আসলেও আমরা ৯শ টাকা করে বিক্রি করছি। তবে নতুন ভাড়ার চার্ট এখনো আসেনি। সরকার যেহেতু ভাড়া বাড়িয়েছে তাই আগের চেয়ে কিছুটা বেশি নেওয়া হচ্ছে। পরিবহন মালিকের নির্দেশে ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন নাবিল

পরিবহনের টিকেট বিক্রেতা বাবু। তিনি বলেন, নতুন ভাড়ার তালিকা না পেলেও মালিক কর্তৃপক্ষের নির্দেশে, ঢাকাগামী প্রতি টিকেটে ৩শ টাকা বাড়তি ভাড়া নেয়া হচ্ছে। নতুন তালিকা আসলে সে অনুযায়ী ভাড়া আদায় করা হবে। এ বিষয়ে জেলা মোটরপরিবহন ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক সাহাদাত হোসেন বলেন, বিআরটিএ থেকে আজকালের মধ্যে নতুন ভাড়ার চার্ট

পেয়ে যাবো। তখন আর কেউ বাড়তি ভাড়া আদায় করার সুযোগ পাবে না। এ ছাড়াও যাত্রীদের কাছ থেকে এখন বর্ধিত ভাড়া ব্যতিত অতিরিক্ত ভাড়া যেনো কেউ না নিতে পারে এ নিয়ে পরিবহনের মালিকদের সংগঠনের সঙ্গে আলোচনা করা হবে।
সরকারের নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা

হলে ওই কাউন্টার গুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু তাহের মো. সামসুজ্জামান। তিনি বলেন, যাত্রীদের কাছ থেকে কোনোভাবেই যেন নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে বেশি না নেওয়া হয় এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় মনিটরিং করা হচ্ছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
Close