দুঃখজনক বিষয়

একে একে মারা গেল একসঙ্গে জন্ম নেয়া সেই পাঁচ শিশু

কুষ্টিয়ায় একসঙ্গে জন্ম নেয়া পাঁচজনের মধ্যে সেই পঞ্চম শিশুরও মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের স্ক্যানু ওয়ার্ডে তার মৃত্যু হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেন হাসপাতালের আবাসিক

মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. আশরাফুল আলম। এর আগে, ২ নভেম্বর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে একসঙ্গে পাঁচ সন্তানের জন্ম দেন ২৪ বছর বয়সী সাদিয়া খাতুন। তিনি কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার পান্টি গ্রামের কলেজপাড়া এলাকার দরিদ্র

চা বিক্রেতা সোহেল রানার স্ত্রী।
একসঙ্গে পৃথিবীতে এলেও জন্মের পরদিন একে একে তিন শিশুর মৃত্যু হয়। এরপর গত বুধবার রাত ১২টার দিকে আরো এক শিশু মারা যায়। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সর্বশেষ শিশুটির মৃত্যু হয়। হাসপাতালের শিশু বিশেষজ্ঞ নাজিম উদ্দিন বলেন,

বাচ্চাগুলোর ওজন কম ছিল। তাদের রাখার জন্য হাসপাতালে সে রকমের আইসিইউ সাপোর্ট নেই। উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেয়া প্রয়োজন ছিল। তাদের বাবার আর্থিক সমস্যা ছিল। তাই এখানে রেখেই চিকিৎসা দেন। সোহেল রানা বলেন, পাঁচ সন্তান

জন্মের পরপরই চিকিৎসকরা উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা নেয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন। কিন্তু আর্থিক সমস্যার কারণে নিতে পারিনি। সর্বশেষ বাচ্চাটিও আজ আমাদের ছেড়ে চলে গেল।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
Close