আলোচিত নিউজ

ডাবল ভাড়া চাইলে ৯৯৯ নম্বরে অভিযোগ করুন : মন্ত্রী

স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, ডাবল ভাড়া দাবি করলে সরাসরি ৯৯৯ নম্বরে অভিযোগ করুন। প্রতিবাদ করতে ভয় পাবেন না। বাংলাদেশ সবার দেশ। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু

দেশটাকে সবার জন্য স্বাধীন করেছেস। বর্তমানে তাঁর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন সোমবার (৮ নভেম্বর) গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া ও কোটালীপাড়ার জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতা ও সরকারি কর্মকর্তাদের সাথে

উন্নয়ন বিষয়ক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন মন্ত্রী। তিনি আরও বলেন, সব মানুষকে ভালো থাকতে হলে যে পেশার লোক হোন না কেন সবাইকে নিয়ে চলতে হবে। যদি উন্নয়ন কাজে জনগণকে সম্পৃক্ত করেন তাহলে জনগণ আপনাকে সাহায্য করবে। জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক নেতারা যদি মানুষের

বিশ্বাস অর্জন করতে পারে তাহলে যখন নির্বাচন আসবে তখন মানুষ এমনিতেই পাশে দাঁড়াবে।
সরকারি কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন অপ্রয়োজনীয় ব্রিজ, রাস্তাসহ কোন নির্মাণ কাজ করা যাবে না। আর যে কাজ করা প্রয়োজন সেটা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করতে হবে। তবে তার গুণগতমানও ভালো

থাকতে হবে। যদি কোনো কাজের গুণগত মান খারাপ হয় তাহলে ওই কাজের দায়িত্বে যে কর্মকর্তা থাকবেন তাকে জবাবদিহি করতে হবে। আর ঠিকাদারের ব্যাপারে কোনো অ্যাকশন নেওয়া যাবে না এরকম কোন আইন নেই দেশে। কারণ তাদের কাজের লাইসেন্স বিভিন্ন দপ্তর থেকে দেওয়া হয়। যদি কোন ঠিকাদার খারাপ কাজ করে তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশনা দেন তিনি।

সোমবার সকাল ১০ টায় টুঙ্গিপাড়া উপজেলা অডিটোরিয়ামে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা সভাপতিত্বে অন্যান্যের আরও বক্তব্য রাখেন খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ সালাহদ্দিন জুয়েল, স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ, গৃহায়ন

ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ শহীদ-উল্লা খন্দকার, গোপালগঞ্জের পুলিশ সুপার আয়েশা সিদ্দিকা, গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলী খান, টুঙ্গিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ আবুল বশার খায়ের, সাধারণ সম্পাদক বাবুল শেখসহ অনেকে। পরে এলজিআরডি

মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম টুঙ্গিপাড়া ও কোটালীপাড়া উপজেলায় বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ পরিদর্শন করেন তিনি। এর আগে সকাল ৯ টা ১৫ মিনিটে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি হেলিকপ্টারে টুঙ্গিপাড়া উপজেলা হেলিপ্যাডে অবতরণ করেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী। এরপর সকাল সাড়ে নয়টায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু

শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তিনি। এসময় বঙ্গবন্ধুসহ সব শহীদদের রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া ও মোনাজাত অংশ নেন তিনি। দোয়া মোনাজাত শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মামা ও টুঙ্গিপাড়া পৌরসভার সাবেক প্রয়াত মেয়র শেখ আহম্মেদ হোসেন মির্জার কবর জিয়ারত করেন তিনি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
Close