Sports Bangla

বাবরদের এক সাথে নামাজ পড়া ও শৃঙ্খলা দেখে মুগ্ধ হেইডেন

চলতি আসরে ভারতের বিপক্ষে ঐতিহাসিক জয়কেও ছাপিয়ে গেছে যে বি’ষয়টি সেটি অনেকেরই জানা। পানি পানের বিরতিতে ম্যাচ জয়ের অন্যতম নায়ক পাক ব্যাটার মোহাম্ম’দ রিজওয়ানের সালাত আ’দায়ের ঘটনাটি।

যা কোটি ভক্তের হৃদয় জয় করেছে। ওই সময় পানি পানে ব্যস্ত ছিলেন ভারতের দুই ব্যাটসম্যানসহ নিজ দলের অন্য ক্রিকেটাররা। আর সেই সুযোগে পাকি’স্তানের উইকেটকিপার রিজওয়ান তার গ্লাভস এবং হেলমেট খুলে মাঠের মাঝখানে হাঁটু গেড়ে বসে

মাগরিবের নামাজ আ’দায় করেন। লাইভ চলাকালীন একজন খেলোয়াড়ের স্র’ষ্টার প্রতি এই আ’ত্মসমর’্পণের দৃশ্য গোটা মাঠে পবিত্র এক আবহের তৈরি করে। গ্যালারি দর্শকরাও চিৎকার-চ্যাচামেচি ছেড়ে অন্যরকম অনুভূ’ত িতে মিশে যায়। চলতি

বিশ্বকাপে পাকি’স্তানের ব্যাটিং পরামর’্শক হিসেবে কাজ করছেন অ’স্ট্রেলিয়ার সাবেক তারকা ক্রিকেটার ম্যাথু হেইডেন। পাকি’স্তান দলের পারফরম্যান্সই নয় মাঠের বাইরে বাবর-আজম’দের শৃঙ্খলায় মুগ্ধ হেইডেন। একটি স্পোর্টস চ্যানেলকে সাক্ষাতকার দিতে গিয়ে এ মুগ্ধতা প্রকাশ করেন সাবেক এই অজি তারকা। তিনি বলেন,

পাকি’স্তানের ক্রিকেটারদের শৃঙ্খলায় আমি অ’ভিভূ’ত । বিশেষ করে তারা তাদের লক্ষ্য পূরণের জন্য যা যা করণীয় তার সবটাই করছে। এছাড়া পাকি’স্তানের ক্রিকেটারদের মধ্যে যে আ’ত্মিকতা ও স্পৃহা এই মুহূর্তে দেখতে পাচ্ছেন সেটি এর আগে কোথাও

দেখননি বলেও জানান হেইডেন। হেইডেন আরো বলেন, তারা বেশ একতাব’দ্ধ। নিয়ম-কানুন মেনে চলে। এবং তারা যেভাবে একতাব’দ্ধ হয়ে নামাজ আ’দায় করে এটা আমা’র জীবনে নতুন এক অ’ভিজ্ঞতা। প্রতিদিন এই অবিশ্বা’স্য শৃঙ্খলা আছে তাদের মধ্যে। হেইডেন বলেন, যখন নামাজের সময় হয় তারা লিফটের

গোড়ায়ও দাঁড়িয়ে যায়, সেখানে পুরো দল একযোগে প্রার্থনা করে। এটি ব্যক্তিগতভাবে আমা’র জন্য একটি অ’সাধারণ সাংস্কৃতিক অ’ভিজ্ঞতা। তারা যেভাবে একে অ’পরের সাথে জড়িত থেকে নামাজ পড়ে এবং তাদের দেশের চারপাশের উদ্দেশ্য পূরণে যেভাবে একতাব’দ্ধ থাকে সেটি সত্যিই অ’সাধারণ। তাছাড়া হেইডেন

সবচেয়ে বেশি অবাক হয়েছেন পাকি’স্তানি ক্রিকেটারদের ধর্ম পালনের সময়জ্ঞান নিয়ে, আমি গত ৫ স’প্ত াহ ধরে পাকি’স্তানের সঙ্গে কাজ করছি। একটা বি’ষয়ে খুব অবাক হয়েছি, তারা কখনো নামাজ পড়তে ভুলে যায় না। যত ব্যস্ততাই থাকুক সবাই একতাব’দ্ধ হয়ে নামাজে দাঁড়িয়ে যায়। এদিকে

চেঞ্জিং রুমের পরিবেশ নিয়ে হেইডেন বলেন, রুমের অভ্যন্তরে আমি জেতার জন্য এর চেয়ে বেশি সুশৃঙ্খলতা এবং আরও নম্র প’দ্ধতি কখনও দেখিনি। এই মুহূর্তে দেশের প্রতি তারা যে স্পৃহা দেখাচ্ছে এটা সত্যিই অবিশ্বা’স্য।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close