মানবাতা ও সমাজ

৫ টি গরু থেকে ৩০ টি গরুর সফল দুগ্ধ খামার

দেশে এখন বেশ জনপ্রিয় হয়েছে গরুর খামার। লাভজনক হওয়ায় প্রতিদিনই নতুন নতুন মানুষ যুক্ত হচ্ছে খামার ব্যবসায়। সফলতা পাচ্ছেন অনেকেই। এমনই এক সফল খামারি হচ্ছেন নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলার নোবেল।

বেশিদূর লেখাপড়ায় এগোতে না পারলেও এগিয়েছেন খামার ব্যবসায়। আর অনন্য এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তিনি। অবসরপ্রাপ্ত বিজিবির সদস্য মৃত নঈম উদ্দিনের জ্যেষ্ঠ পুত্র মো. নুরুল আলম নোবেল। স্বাবলম্বী হওয়ার স্বপ্ন দেখেন জীবনের

শুরু থেকেই। স্বপ্ন পূরণের প্রত্যাশায় বিভিন্ন ব্যবসা করার প্রচেষ্টায় কোনো অবহেলা নেই তার। বিয়ে, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানের ভিডিও চিত্র ধারণ, কম্পোজিশন, এডিটিং ছাড়াও ভিডিও ফিল্ম বিক্রির ব্যবসা কি করেননি তিনি।

তবে কিছুতেই লাভের মুখ দেখতে পারেননি তিনি। অবশেষে ২০১০ সালে শহরের রামভদ্রপুর এলাকায় নিজস্ব জমির ওপর একটি গরুর খামার গড়ে তুলেন। প্রাথমিকভাবে ৫টি ফ্রিজিয়ান ও অস্ট্রেলিয়ান জাতের ৫টি গরু নিয়ে শুরু করেন। অনেক চড়াই-

উতরাই পেরিয়ে অবশেষে সফলতার মুখ দেখতে চলেছেন নোবেল। ৫টি গরু থেকে বর্তমানে তার ওই খামারে গরুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩০টি। এর মধ্যে ১৭টি গাভী রয়েছে। বর্তমানে সেগুলোর মধ্যে ৮টি গাভী দুধ দিচ্ছে। প্রতিদিন ওই ৮টি গাভী থেকে কমপক্ষে ১২০

কেজি দুধ সংগ্রহ করছেন তিনি। প্রতিদিন সকাল-বিকাল দুবার গোয়াল গাভীগুলো দহন করে দুধ সংগ্রহ করে থাকেন। পাইকারিভাবে গোয়ালারা প্রতি কেজি ৪০ টাকা হারে দুধ কিনে থাকেন। বর্তমানে দুধের বিক্রি মূল্য প্রায় ৫ হাজার টাকা।

নোবেল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে কিভাবে সাবলম্বী হয়ে যায়। এ ধরনের সফলতা দেখে অনেক বেকার যুবক এগিয়ে আসবে এবং নিজেদের ভাগ্য উন্নয়নের পাশাপাশি জাতীয় অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে বলে মনে করেন এলাকার বয়োজোষ্ঠরা

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close