আন্তর্জাতিক

প্রবাসীদের পতাকার মেয়াদ ৩ বছর করলো ওমান

প্রবাসীদের রেসিডেন্স কার্ড বা পতাকার মেয়াদ পূর্বের ২ বছরের পরিবর্তে ৩ বছর করে নতুন আইন জারি করেছে ওমান সরকার। চলতি সপ্তাহে দেশটির শ্রম মন্ত্রণালয়ের নতুন এক প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়, এখন

থেকে নতুন নবায়নকৃত আইডির তারিখ হতে পরবর্তী ৩ বছরের জন্য প্রবাসীদের পতাকার মেয়াদ থাকবে। যা পূর্বে ২ বছরের জন্য ছিলো। গতকাল রবিবার দেশটির পুলিশ ও কাস্টমসের মহাপরিদর্শক লেফটেন্যান্ট জেনারেল হাসান আল শারিকি সিভিল

স্ট্যাটাস আইনের নির্বাহী প্রবিধান সংশোধনের সিদ্ধান্ত জারি করেন। নতুন আইন অনুযায়ী, ওমানে ১০ বছর বা তার বেশি বয়সীদের জন্য রেসিডেন্স কার্ড করা বাধ্যতামূলক করেছে দেশটির সরকার। এছাড়াও কোনো নাগরিক যদি সময় মতো পতাকা নবায়ন না করতে পারে তাহলে তাকে গুনতে হবে ৫ রিয়াল জরিমানা।

রয়্যাল ওমান পুলিশ জানিয়েছে, “সিভিল স্ট্যাটাসের নতুন সংশোধিত আইনে কোনো ওমানি নাগরিক বা প্রবাসীর বয়স ১০ বছর হওয়ার ৩০ দিনের মধ্যে আইডি কার্ড তৈরি করতে হবে। যদি কোনো ব্যক্তি কার্ড তৈরি করতে না পারে তাহলে তাকে জরিমানা গুনতে হবে। ওমানে পরিবার নিয়ে বসবাস করছেন এমন

প্রবাসীদের সন্তানদের বয়স ১০ বছর হওয়ার ৩০ দিনের মধ্যে পতাকা/ রেসিডেন্স কার্ড করে নিতে হবে। নতুন এই আইনে হারানো কার্ড পুনরায় ইস্যু করার জন্য ওমানি নাগরিকদের ক্ষেত্রে ১০ রিয়াল এবং প্রবাসীদের জন্য ২০ রিয়াল নির্ধারণ করা হয়েছে। এদিকে, আজ ৫ বছর এবং ১০ বছর মেয়াদি ইনভেস্টর ভিসার ফি ঘোষণা করেছে রয়্যাল ওমান পুলিশ (আরওপি)।

নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিনিয়োগকারীদের ৫ থেকে ১০ বছরের জন্য ভিসা ফি ৩০০-৫০০ ওমানি রিয়াল ধার্য করা হয়েছে। এছাড়াও তিন বছর পরপর এই ভিসা নবায়ন করতে পারবে বিনিয়োগকারীরা। বিনিয়োগকারীদের স্ত্রী ও সন্তানদের ভিসার বিষয়ে আরওপি জানিয়েছে, “বিনিয়োগকারীরা চাইলে ১ বছরের জন্য তাদের স্ত্রী অথবা সন্তানদের ভিসার আবেদন করতে পারবে।

এই জন্য ১০ বছরের ভিসা প্রাপ্ত বিনিয়োগকারীদের ১০০ ও পাঁচ বছরের ভিসা প্রাপ্ত বিনিয়োগকারীদের ৫০ ওমানি রিয়াল প্রদান করতে হবে। এছাড়াও উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের অনুমোদনের ভিত্তিতে এই ভিসার মেয়াদ বাড়ানো যেতে পারে।” আরওপি আরো জানিয়েছে, “যারা বিনিয়োগ বা রিয়েল এস্টেটের মাধ্যমে ইনভেস্টর ভিসা পেয়েছেন, তাদের ক্ষেত্রে বয়সের প্রয়োজনীয়তা প্রযোজ্য হবে না।

অর্থাৎ তাদের বয়স ষাটোর্ধ হলেও কোনো সমস্যা নেই। এছাড়াও কোনো প্রবাসী বিনিয়োগকারী যদি তাদের সম্পত্তি হস্তান্তর বা বিক্রয় করে তাহলে তার ভিসার মেয়াদ বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে আরওপি। সিদ্ধান্তে আরও বলা হয়েছে, “নির্ধারিত ফি প্রদানসহ সংশ্লিষ্ট নিয়মনীতি অনুসরণ করেই ভিসা নিতে পারবে প্রবাসী বিনিয়োগকারীরা। ওমানে বিদেশি বিনিয়োগ বাড়ানোর লক্ষ্যে বাণিজ্য, শিল্প ও বিনিয়োগ প্রচার মন্ত্রণালয় (এমওসিআইআইপি)

সম্প্রতি নতুন এই বিনিয়োগ কর্মসূচি চালু করেছে। নতুন কর্মসূচী অনুযায়ী আবাসন প্রাপ্ত বিনিয়োগকারীদের আরও প্রণোদনা এবং সুযোগ সুবিধা প্রদান করা হবে। বিনিয়োগের পরিবেশ বাড়ানোর লক্ষ্যেই প্রবাসী ব্যবসায়ীদের জন্য এমন ভিসা চালু করেছে ওমান। দেশটিতে ব্যবসা করতে ইচ্ছুক এমন প্রবাসীরা ৫ থেকে ১০ বছর মেয়াদি এই ভিসা গ্রহণ করতে পারবেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close