আন্তর্জাতিক

কাতারে ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে সংশোধন না করলে বিপদে পড়বে বাংলাদেশিরা

কাতারে প্রবেশ, বের হওয়া এবং আবাসন (ইকামাহ) বিষয়ক আইন অমা’ন্যকারী বাংলাদেশসহ বিদেশীদের আ’ইনগত অবস্থান সংশোধ’নের সময়সীমা সম্পর্কিত বিষয়ে ঘোষণা দিয়েছে কাতার সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

এ লক্ষ্য চলতি বছরের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়। কাতারের দোহার বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে এ প্রস’ঙ্গে বলা হয়, গত ৭ অক্টোবর কাতার সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে প্রবাসীদের প্রবেশ, প্রস্থান ও আবাসন (ইকামাহ) নিয়ন্ত্রণ বিষয়ক

২০১৫ এর ২১ নম্বর আইন লঙ্ঘ’নকারী প্রবাসীদের আইনগত অবস্থান সংশোধনের কথা উল্লেখ করে বলা হয়, যারা আইন লঙ্ঘ’ন করেছেন তাদের অবস্থান সংশোধ’নে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গত ১০ অক্টোবর থেকে চলতি বছরের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময়সীমা নির্ধারণ করে দিয়েছে।

নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সংশ্লিষ্ট প্রবাসী বা নিয়োগকর্তাকে সার্চ অ্যা’ন্ড ফলোআপ ডিপার্টমেন্ট (সালওয়া রোডের পাশে, যেখানে সফরজেল রয়েছে) অথবা নির্ধারিত সরকারি সার্ভিস সেন্টারগুলোতে (উম্ম সালাল সার্ভিস সেন্টার, উম্মুস সানিম সার্ভিস সেন্টার, মুসাইমির সার্ভিস সেন্টার, আল ওয়াকরা সার্ভিস সেন্টার

এবং আল রাইয়্যান সার্ভিস সেন্টারে) জরিমা’না মওকুফ অথবা কমা’নোর আবেদনপূর্বক উপর্যুক্ত আ’ইন লঙ্ঘ’নসংক্রান্ত বিষয়াদি নিষ্প’ত্তির জন্য প্রতিদিন বেলা ১টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত সময়ের মধ্যে যোগাযোগের অনুরো’ধ জানানো হয়েছে। আইনগত অবস্থান সংশোধ’নে তিন শ্রেণীর প্রবাসীরা সুযোগ পাবেন বলে

দূতাবাস থেকে জানানো হয়েছে। এর মধ্যে আবাসন (ইকামাহ), ওয়ার্ক ভিসা ও ফ্যামিলি ভিজিট-সংক্রা’ন্ত নিয়ম ল’ঙ্ঘন। এর মধ্যে যারা কাতারি আইডির মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ার কারণে অ’বৈধ হয়েছে বা রেসিডেন্সি আইন ল’ঙ্ঘন করেছে। যারা ওয়ার্ক ভিসায় এসে আইডি না করে অ’বৈধ হয়েছে বা ওয়ার্ক ভিসা-সংক্রা’ন্ত

কোনো আইন ল’ঙ্ঘন করেছে। অথবা যাদের ফ্যামেলি ভিসার মেয়াদোত্তী’র্ণ হয়েছে বা এ সংক্রা’ন্ত বিধি লং’ঘন করেছে তারা এই ঘোষণার আওতায় আসবেন বলে জানিয়েছে দেশটির বাংলাদেশ দূতাবাস। কাতারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট প্রবাসী ও

নিয়োগকর্তাদের উল্লিখিত সময়ের মধ্যে অব্যাহতিপ্রাপ্তির সুযোগ গ্রহণ করার আহ্বান জানানো হয় দূতাবাসের বিজ্ঞপ্তিতে। উল্লেখ্য, বর্তমানে মধ্যেপ্রাচ্যের উন্নত এবং ধনী দেশ কাতারে বৈধভাবে চার লক্ষাধিক প্রবাসী বাংলাদেশী নানা পেশায় নিয়োজিত রয়েছেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close