শিক্ষাঈন

ডিআইএর পরিদর্শন : ২২ শিক্ষক-কর্মচারীকে মন্ত্রণালয়ে তলব

পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদপ্তরে পরিদর্শন প্রতিবেদনে ওঠা অভিযোগের বিষয়ে শুনানিতে অংশ নিতে বিভিন্ন বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ২২ জন শিক্ষক-কর্মচারীকে তলব করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। আগামী ৫ অক্টোবর

সকালে তাদের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগে উপস্থিত হয়ে শুনানিতে অংশ নিতে বলা হয়েছে। অভিযুক্ত শিক্ষক কর্মচারীদের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে শুনানিতে উপস্থিত হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ থেকে

এ ২২জন শিক্ষক কর্মচারীকে শুনানিতে উপস্থিত হওয়ার নির্দেশ দিয়ে আলাদা আলাদা চিঠি পাঠানো হয়েছে। আগামী ৫ অক্টোবর শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে তলব করা শিক্ষক-কর্মচারীদের তালিকায় আছেন চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার বাঁশখালী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে

সহকারী গ্রন্থাগারিক বিপ্লব রানী সুশীল, সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার চাঁদপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী গ্রন্থাগারিক দিলীপ কুমার ঘোষ,  সাতক্ষীর সদর উপজেলার আলিপুর ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী গ্রন্থাগারিক রাবেয়া সুলতানা,

আশাশুনি উপজেলার কাকবাসিয়া বঙ্গবন্ধু মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী গ্রন্থাগারিক সঞ্জীব কুমার ঢালী, একই স্কুলের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক আব্দুস সামাদ সরদার, সাবেক সহকারী শিক্ষক সুলতান আহমেদ, একই স্কুলের গাইন মোক্তার। এ তালিকায় আরও আছেন, নীলফামারী সদর উপজেলার চাঁদেরহাট বালিকা

উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক রাধিকা বেগম, নওগাঁর পত্নিতলা তকিপুর উচ্চবিদ্যালয়ের সহকারী গ্রন্থাগারিক দীপক কুমার মন্ডল, বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার ছাতিনগ্রাম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. রেজাউল ইসলাম, একই স্কুলের সহকারী শিক্ষক মো. ছাইদুল ইসলাম, সহকারী শিক্ষক মোছা. কহিনুর

আখতার, সহকারী শিক্ষক মঈনউদ্দিন, সহকারী মো. আব্দুল হাকিম, সহকারী শিক্ষক মো. নজরুল ইসলাম, অফিস সহকারী আব্দুল হান্নান, এমএলএসএস আলেয়া বেগম, এমএলএসএস মো. আব্দুস সাত্তার, এমএলএসএস মো. মোতাহার আলী। 
তলব করা শিক্ষক-কর্মচারীদের তালিকা আরও আছেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর উপজেলার নয়াদিয়া হাজী ইয়াকুব

আলী মন্ডল উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী মেরিনা খাতুন, একই স্কুলের
সহকারী শিক্ষক মো. আনোয়ারুল হক এবং সহকারী শিক্ষক নিরঞ্জন সরকার। মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদপ্তর থেকে ২০০৫ খ্রিষ্টাব্দ থেকে ২০১৭ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত এ প্রতিষ্ঠানগুলো পরিদর্শন ও নিরীক্ষা করা হয়। পরে ডিআইএর দাখিল করা প্রতিবেদন পর্যালোচনা ও বাস্তবায়ন কমিটি

পর্যালোচনা করে। পর্যালোচনায় পাওয়া অভিযোগের বিষয়ে অভিযুক্তদের শুনানি গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। মন্ত্রণালয় আরও জানিয়েছে, আগামী ৫ অক্টোবর সকাল ১১টায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব খালেদ আক্তারের অফিসে অভিযুক্তদের শুনানি অনুষ্ঠিত হবে। তাদের প্রয়োজনী কাগজপত্রসহ শুনানিতে উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে। 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close