বিনোদন ও লাইফ স্টাইল

বেঁচে থাকলে আজ ৫০ বছরে পা দিতেন সালমান শাহ

নায়ক সালমান শাহ। বাংলা সিনেমার ক্ষণজন্মা সৃষ্টিশীল মানুষ। ১৯৭০ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর সিলেটে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি বেঁচে থাকলে রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) ৫০ বছরে পা দিবেন তিনি। বাংলা সিনেমা যতদিন রবে তার

ইতিহাসের পাতায় স্বর্ণ অক্ষরে লেখা থাকবে সালমান শাহ’র নাম। ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর সবাইকে কাঁদিয়ে পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করেন এই নায়ক। সালমান শাহ’র প্রকৃত নাম ছিল শাহরিয়ার চৌধুরী ইমন। তার বাবা কমর উদ্দিন চৌধুরী ও মা নীলা চৌধুরী। সালমান শাহ দেশীয় সিনেমায় ধূমকেতু হয়েই যেন ধরা

দিয়েছিলেন। ১৯৯৩ সালে সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ সিনেমার মাধ্যমে ঢালিউডে পা রাখেন তিনি। একই সিনেমায় অভিষেক ঘটে চিত্রনায়িকা মৌসুমীরও। সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়ে প্রথম সিনেমাতেই সাফল্যের দেখা পান সালমান। তার চলন-বলন ও পোশাক-পরিচ্ছদ এবং স্টাইল তরুণদের মন জয় করে নেয়।

ক্যারিয়ারের শুরুতে সালমান শাহ কাজ করেছেন ছোট পর্দায়। ‘আকাশ ছোঁয়া’, ‘দোয়েল’, ‘সব পাখি ঘরে ফেরে’, ‘সৈকতে সারস’, ‘নয়ন’ ও ‘স্বপ্নের পৃথিবী’তে নাটকে তাকে অভিনয় করতে দেখা গেছে। বিজ্ঞাপন কাজ করেছেন তিনি। সালমান শাহ অভিনীত সিনেমাগুলো হলো- কেয়ামত থেকে কেয়ামত (বিপরীতে মৌসুমী), তুমি আমার (শাবনূর), অন্তরে অন্তরে (মৌসুমী),

কন্যাদান (লিমা), জীবন সংসার (শাবনূর), চাওয়া থেকে পাওয়া (শাবনূর), সুজন সখী (শাবনূর), বুকের ভেতর আগুন (শাবনূর), এই ঘর এই সংসার (বৃষ্টি), স্নেহ (মৌসুমী), বিচার হবে (শাবনূর), প্রেমযুদ্ধ (লিমা), মহা মিলন (শাবনূর), তোমাকে চাই (শাবনূর), বিক্ষোভ (শাবনূর), আশা ভালোবাসা

(শাবনাজ), মায়ের অধিকার (শাবনাজ), আঞ্জুমান (শাবনাজ), আনন্দ অশ্রু (শাবনূর), প্রেম পিয়াসী (শাবনূর), সত্যের মৃত্যু নেই (শাহনাজ), প্রিয়জন (শিল্পী), শুধু তুমি (শ্যামা), স্বপ্নের পৃথিবী (শাবনূর), স্বপ্নের নায়ক (শাবনূর), দেন মোহর (শাবনূর) ও স্বপ্নের ঠিকানা (শাবনূর)। সালমান অভিনীত শেষ সিনেমা

‘বুকের ভেতর আগুন’ । তার ২৭টি সিনেমার ১৪টিতে নায়িকা হিসাবে অভিনয় করেন শাবনূর। মাত্র তিন বছর বড় পর্দায় কাজ করার সুযোগ পেয়েছিলেন সালমান শাহ। এই অল্প সময়েই যেমন হয়েছেন দর্শকপ্রিয় তেমনি উপহার দিয়েছেন সুপারহিট সব সিনেমা।

১৯৯৬ সালে নিজ ঘরে সালমান শাহ’কে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। পুলিশের একাধিক রিপোর্টে বিষয়টিকে আত্মহত্যা বলা হয়েছে। কিন্তু তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে শুরু থেকেই দাবি করে আসছেন সালমানের মা নীলা চৌধুরী।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close