প্রবাসির খবর

বিদেশ থেকে কার্গোতে দেশে মালামাল পাঠানো নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

মধ্যপ্রাচ্যসহ অনেক দেশ থেকে প্রবাসীরা কার্গোতে দেশে পরিবারের জন্য বিভিন্ন জিনিসপত্র পাঠানোর জন্য বুকিং দিয়েছেন। দেখা যাচ্ছে, এসব প্রতিষ্ঠানের বেশির ভাগ মালিক বাংলাদেশি কিংবা পরিচালনার দায়িত্বে বাংলাদেশি।

কিন্তু ৮-১০ মাসেও এসব মালামাল বাংলাদেশে প্রবাসীদের পরিবারের হাতে আসেনি।
এসব কার্গো প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারা প্রবাসীদের বলছে, বাংলাদেশে বিমানবন্দরে কাস্টমস মালামালগুলো আট’কে আছে। যদিও প্রতিষ্ঠানটির এই তথ্য সঠিক নয়। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কা’র্গো প্রতিষ্ঠানগুলো প্রবাসীদের কাছ থেকে টাকা

নিলেও যথাযথ প্রক্রিয়ায় মালামা’ল পাঠায়নি। যার কারণে ঢাকায় আসার পর জটি’লতা হচ্ছে। কোন কোন ক্ষে’ত্রে বিদেশে থেকে কোন মালামালই পাঠায়নি কার্গেো প্রতিষ্ঠানগুলো। কিন্তু তারা প্রবাসীদের কাছে মি’থ্যা তথ্য দিয়ে বলছে, কাস্টমস মালামা’ল আট’কে রেখেছে। তাই কার্গো প্রতিষ্ঠানের মি’থ্যা আ’শ্বাসে

বি’ভ্রান্ত হবেন না। ইতোমধ্যে বাহরাইনসহ অন্যান্য দেশের প্রবাসীরা এসব কার্গো প্রতিষ্ঠানে বিরু’দ্ধে পুলিশ কে’স করেছে। আপনিও প্র’তারিত হলে কার্গো প্রতিষ্ঠানের বিরু’দ্ধে পুলিশ কে’স করুন। যথাযথ পদ্ধতিতে মালামাল যেসব প্রতিষ্ঠান পাঠাচ্ছে, তাদের

মালামাল যথা নিয়মে দ্রুত খালা’স হচ্ছে। বাংলা এভিয়েশন কার্গো সংক্রা’ন্ত জটিলতা নিয়ে অনুস’ন্ধান করছে। আপনি ভু’ক্তভো’গি হলে তথ্য দিয়ে সহায়তা করুন। আপনার নাম, কোন দেশ থেকে মালামাল পাঠিয়েছেন, কতকেজি মালামা’ল, কোন প্রতিষ্ঠানে

মাধ্যমে পাঠিয়েছেন, কত তারিখে বুকিং করেছিলেন, কত টাকা চার্জ নিয়েছিলো, আপনার ফোন নাম্বার, বুকিংয়ের কোন কাগজপত্র থাকলে তার ছবি সহ আমাদের জানান। আমরা চেষ্টা করবো এ সমস্যার বিষয়ে কাস্টমসের সঙ্গে যোগাযোগ করে আপডেট তথ্য জানাতে। সুত্রঃ বাংলা এভিয়েশন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close