আন্তর্জাতিক

একমাত্র বিরোধীগোষ্ঠী পাঞ্জশিকে ঘিরে ফেলেছে তালেবান!

তালেবানরা তাদের শাসনকে প্রতিহত করে একমাত্র অবশিষ্ট প্রদেশকে ঘিরে ফেলেছে। বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) একজন সিনিয়র নেতা আল জাজিরাকে এই তথ্য জানিয়েছেন। নেতা বলেন, বিদ্রোহী গোষ্ঠীকে সমঝোতার জন্য আলোচনার আহ্বান

জানিয়েছেন। আমাদের যোদ্ধারা চারদিক থেকে পাঞ্জশির ঘিরে ফেলেছে। বিদ্রোহীদের অস্ত্র ত্যাগ করার আহ্বান জানানো হয়েছে।
গত ১৫ আগস্ট তালেবান রাজধানী কাবুলসহ দেশটির ৩৪ প্রদেশের ৩৩টি দখল করে। কিন্তু এই প্রদেশটি এখনও তাদের

বেদখলে রয়েছে। আফগানিস্তানের একেবারে শেষ প্রান্তের প্রদেশ পাঞ্জশির। পাঞ্জশির নদীর নামেই এই উপত্যকা। কাবুলের মাত্র ৬৫ কিলোমিটার উত্তরপূর্বে হিন্দুকুশ পর্বতমালায় এর অবস্থান। এই উপত্যকায় বসে বিদ্রোহের ঘোষণা দিয়েছেন ক্ষমতাচ্যুত আফগান সরকারের ভাইস প্রেসিডেন্ট আমরুল্লাহ সালেহ।

তার সঙ্গে আছেন গনি সরকারের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেনারেল বিসমিল্লাহ মোহাম্মদী ও আফগানিস্তানের প্রয়াত মোজাহিদীন কমান্ডার শাহ আহমদ মাসউদের ছেলে আহমদ মাসউদ। গত কয়েকদিন আগে তালেবান পাঞ্জশির বিদ্রোহীদের আত্মসমর্পণের আহ্বান জানায়। কিন্তু তারা আত্মসমর্পণ করেনি। পাঞ্জশিরে তালেবান বিরোধী অন্যতম বিদ্রোহী আহমাদ মাসউদ বলেন,

তালেবানের কাছে পাঞ্জশির হস্তান্তর করা হবে না। তালেবান এই এলাকা দখল করতে চাইলে আমাদের বাহিনী তাদেরকে প্রতিরোধ করতে প্রস্তুত। সেই থেকে এলাকাটিতে বিচ্ছিন্নভাবে সংঘর্ষের খবর পাওয়া যাচ্ছে। এক টুইট বার্তায় নর্দান অ্যালায়েন্স দাবি করেছে, তারা পাঞ্জশিরে ৩৫০ জন তালেবান যোদ্ধাকে হত্যা করেছেন। তবে বুধবার এক রেকর্ডকৃত বক্তব্যে তালেবানের সিনিয়র নেতা আমির

খান মোতাকি বলেন, আমাদের যোদ্ধারা পাঞ্জশির ঘিরে ফেলেছে। বিদ্রোহীদের অস্ত্র ত্যাগ করে আলোচনায় বসার আহ্বানও জানানো হয়েছে। তিনি বলেন, ইসলামি আমিরাত অব আফগানিস্তান সকল আফগান নাগরিকের। তালেবানে নিজেদের মধ্যে যুদ্ধ চায় না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close