প্রবাসির খবর

মালয়েশিয়া দূতাবাসের ডিজিটাল ভোগান্তিতে বৈধতা হারাতে পারেন অনেকে

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাসের পাসপোর্ট নিয়ে ডিজিটাল বি’ড়ম্বনা’য় প্রবাসীরা। মাসের পর মাস গেলেও পাসপোর্ট ইস্যু না হওয়ায় বৈ’ধতা হারাতে পারেন অনেকে। অপরদিকে এই পাসপোর্টের কারণে মালয়েশিয়া

সরকারের দেয়া বৈ’ধতার সুযোগ রিক্যালিব্রেশন কর্মসূচিতেও অংশ নিতে পারছেন না শত শত বাংলাদেশি। গত বছরের মার্চ থেকে মালয়েশিয়া সরকার বিভিন্ন মেয়াদে মহামারি উত্তরণে চলছে বি’ধিনি’ষেধ আরোপ করেছে। আর এ বিধি নিষে’ধের কারণে

লোক সমাগমের উপরও করা হয় কঠো’র আইন। এমন পরিস্থিতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের কথা চিন্তা করে দূতাবাস স্ব-শরীরে এসে পাসপোর্ট গ্রহণ না করতে এবং একই সঙ্গে পোষ্ট অফিসের মাধমে পাসপোর্ট জমা দিতে নোটিশ দেয়। সে সময় নোটিশে বলা হয় রি-ইস্যু ফরম জমা দেয়ার সময় অবশ্যই ব্যক্তিগত হোয়্যাটসঅ্যাপ

নম্বর দিতে, কারণ পাসপোর্ট জমা শেষে নিজ নিজ মোবাইলে মেসেজ দেয়া হবে। পো’ষ্ট অফিসের মাধ্যমে পাসপোর্ট জমা দেয়া কার্য’ক্রম শুরু হলেও একটি অনি’শ্চিত ভো’গা’ন্তিতে পড়েন প্রবাসীরা। কয়েক মাস চলে গেলেও মোবাইলে মেসেজ বা অনলাইনে নামও পাওয়া যায় নি বলে অহ’রহ অভি’যোগ পাওয়া

যাচ্ছে। এদিকে, মালয়েশিয়ায় ক্র’মেই কো’ভি’ড আ’ক্রা’ন্তের সংখ্যা বাড়তে থাকায় দূতাবাসে এসে পাসপোর্ট সংগ্রহ করা খুবই কঠিন হয়ে পড়ে এবং দূতাবাসেও বাড়তে থাকে কো’ভি’ড আ’ক্রা’ন্তের সং’খ্যা। সকল বিষয় বিবেচনা করে প্রাথমিক অবস্থায় মোবাইল কলের মাধ্যমে পরর্বতীতে অনলাইনের মাধ্যমে

এপোয়েনমেন্ট নেয়ার ব্যবস্থা করা হয়। এক্ষেত্রে অধিকাংশ প্রবাসী অনলাইন সেবা না বুঝায় পাসপোর্ট দূতাবাসে আসছে কি না বা কিভাবে তা আবেদন করতে হয় এমন জটি’লতার মাঝে হঠাৎ বন্ধ করে দেওয়া হয় দূতাবাসে এসে পাসপোর্ট সংগ্রহ করা। চালু করা হয় পোষ্ট অফিসের মাধ্যমে পাসপোর্ট বিতরণ। অনলা’ইনের মাধ্যমে

সঠিক প্রক্রিয়ায় আবেদন শেষে পাওয়া যায় কা’ঙ্ক্ষিত পাসপোর্ট। আর এই অনলাইন প্র’ক্রিয়া’তে রয়েছে বেশ কিছু ধাপ যা পূরণে সাধারণ প্রবা’সীদের পড়ছে বি’ড়ম্ব’নায়। দূতাবাসে পাসপোর্ট এসে মাসের পর মাস পড়ে থাকলেও অনলাইনে নিজের পাসপোর্ট ডেলিভারি নম্বর না পাওয়ায় সময়মত পাসপোর্ট পাচ্ছেন না।

দূতাবাসে নিজেদের সমস্যার সমাধান না পেয়ে নিরা’শ হয়ে ফিরছেন অনেকেই। কেউ বা বা’ধ্য হচ্ছেন দা’লালের দারস্থ হতে। এমন পরিস্থিতে প্রবাসীরা মনে করেন, অতি’রিক্ত দ’ক্ষ জনবল নিয়োগের মাধ্যমে খুব দ্রুত এ গুরুত্বপূর্ণ সমস্যার সমাধান করা উচিত।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close