আন্তর্জাতিক

কাতারে হারানো জিনিস পেয়ে মালিককে ফেরত না দিলে যে শাস্তি নিশ্চিত

কাতারে কেউ হারানো ফোন, নগদ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার খুঁজে পায় সেক্ষেত্রে সঠিক পদ্ধতিতে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পরামর্শ দেয় মন্ত্রণালয়। আইন অ’মান্য কারীকে কানুন অনুযায়ী চো’র বলে গণ্য করা হবে এবং ছয়

মাসের কা’রাদ’ণ্ড পাশাপাশি ৩ হাজার কাতারি রিয়াল জরি’মানা করা হবে। কাতার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় প্রবাসীদের আইন মেনে চলার এবং দেশের প্রচলিত ও ঐতিহ্য সম্পর্কে সচে’তন থাকার আহ্বান জানিয়েছে। সম্প্রতি মন্ত্রণালয়ের রাজধানী নিরাপত্তা বিভাগ কর্তৃক

“প্রবাসী সম্প্রদায়ের সাধারণ অপ’রাধ” নামক ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত হয়। প্রায় ২০০ জন মানুষ ওয়েবিনারে উপস্থিত ছিলেন। গত ৪ আগষ্ট বুধবার অনুষ্ঠিত হয় ওয়েবিনারটি। এই ওয়েবিনারের মাধ্যমে প্রবাসীদের যেসব অ’পরা’ধ এড়িয়ে চলা উচিত মন্ত্রণালয়

তা তুলে ধরেছে। ওয়েবিনার চলাকালীন রাজধানী নিরাপত্তা বিভাগের একজন কর্মকর্তা বিভিন্ন অপ’রাধ, আইন ল’ঙ্ঘন ও জরি’মানা সম্পর্কে কথা বলেন। মিসাইমির সেকশনের পুলিশ প্রধান লেফটেন্যান্ট কর্নেল খলিফা সালমান ওয়েবিনারে বক্তব্য দিতে গিয়ে

বলেন, যদি কেউ হারানো ফোন, নগদ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার খুঁজে পায় তাহলে সেগুলো তাদের মালিকদের কাছে অথবা নিকটস্থ থানায় সাত দিনের মধ্যে হস্তান্তর করতে হবে। কেউ এসব মূল্যবান জিনিস খুঁজে পাওয়ার পর সেগুলো ফেরত না দিয়ে যদি নিজের

হেফাজতে রেখে দেয় তাহলে আইন অনুযায়ী ছয় মাসের কা’রাদ’ণ্ড পাশাপাশি ৩ হাজার কাতারি রিয়াল জরি’মানা করা হবে। চু’রির শা’স্তি সম্পর্কে লেফটেন্যান্ট কর্নেল সালমান বলেন, চু’রির অপ’রাধে আইন অনুযায়ী দুই বছরের কা’রাদ’ণ্ড এবং

যাবজ্জী’বন কা’রাদ’ণ্ডও হতে পারে। যে ব্যক্তি অন্যের সম্পত্তির মালিকানা অর্জনের উদ্দেশ্যে আ’ত্মসা’ৎ করে তাকে চো’র বলে গণ্য করা হবে। তিনি সবাইকে কাতারের আইন ও বিধি মেনে চলার এবং দেশের রীতিনীতি ও ঐতিহ্যকে সম্মান করার উপর জোড়ালোভাবে আহ্বান করেন।

শুকরান কাতার।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close