আলোচিত বাংলাদেশ

গাজীপুরের তুরাগ নদীতে ডুবে কিশোর নিখোঁজ

গাজীপুর মির্জাপুর ইউনিয়নের আঙ্গুটিয়াচালা এলাকায় তুরাগ নদীতে ডুবে নয়ন(১২) নামের এক কিশোর নিখোঁজ হয়েছে। নয়ন গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জের সালমারা ইউনিয়নের পাচুলিপুর গ্রামের আশাদুলের ছেলে।

নয়ন তার পরিবারের সাথে বাহাদুরপুর স্কুলের পাশে ফিরোজের ভাড়া বাড়িতে থাকতেন। সোমবার( ২ আগষ্ট) সকাল ১১টার দিকে নয়নকে নিয়ে  চার যুবক নদীতে সাতাঁর কাটতে গিয়ে এ দূর্ঘটনা ঘটে। সন্ধ্যা পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল চেষ্টা চালিয়েও

নয়নের লাশ উদ্ধার করতে পারেনি।
স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল আনুমানিক ১১টার দিকে চার যুবক নয়নকে নিয়ে তুরাগ পাড়ে আসেন। এসময় তারা নদীতে সাতাঁর কাটার জন্যে নামতে চাইলে অনেকেই তাদের সর্তক করেন।

কারো কথা না শুনে নয়নের দুহাত দুজনে ধরে নদীতে ঝাঁপ দিলে তীব্র স্রোতে নয়ন এবং এক যুবক তলিয়ে যাওয়ার সময় তাদের চিৎকারে স্থানীয় একজন এগিয়ে এসে যুবককে উদ্ধার করতে পারলেও নয়ন নদীর পানিতে তলিয়ে যায়। ঘটনাস্থলে উপস্থিত

নিখোঁজ নয়নের ভাই রাজা মিয়া সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান,  আমার ভাই ক্রিকেট খেলছিল সেই সময় শাহীন(২৮), বাবলু(৪০), আনন্দ(২০), সিজু (২২) আমার ভাইকে ডেকে নিয়ে আসে বলে তার খেলা সাথীরা জানায়। এ জায়গায় আমরা

কখনো আসিনি এবং আমার ভাইও কখনো আসেনি।  যারা আমার ভাইকে এখানে নিয়ে আসে তাদের দুজনের সাথে আমাদের ইতো পূর্বে ঝগড়া হয়েছিল। তাদের বিরুদ্ধে থানায় কোন লিখিত অভিযোগ দিবেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে রাজা মিয়া বলেন,

আগে আমার ভাইয়ের লাশটি পেয়ে নেই। তার পর পরিবারের সাথে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নিব। এ ঘটনায় যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তাদের কাউকে ঘটনাস্থলে পাওয়া যায়নি। নয়নের লাশ উদ্ধারের বিষয়ে ডুবুরি দলের নেতৃত্বদান কারী টঙ্গী ফায়ার

সার্ভিসের লিডার  এ হোসেন সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, এ বিষয়ে আমাদের জানানোর সাথে সাথে আমরা দুপুরের পর থেকেই উদ্ধার কাজ শুরু করি। নদীতে প্রবল স্রোত থাকার কারণে আমাদের

ডুবুরিদের কাজ করতে সমস্যা হচ্ছে। তাছারা নদীর তলদেশে মাছ ধরার কাজে ব্যবহৃত ঝাটা রয়েছে ফলে বার বার বাধার সন্মুখী হতে হচ্ছে। তারপরও আমরা উদ্ধার কাজ অব্যহত রেখেছি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
Close