আন্তর্জাতিক

সৌদি-ভিত্তিক ব্যাংক থেকে ঋণ নিচ্ছে পাকিস্তান

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান, ফাইল ছবি

পাকিস্তান সরকার এবার তেল-গ্যাসের ঘাটতি মেটাতে সাড়ে ৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ নিচ্ছে। ইতোমধ্যে এ বিষয়ে সৌদি আরব-ভিত্তিক ইসলামিক ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের (আইডিবি) সঙ্গে পাকিস্তানের একটি চুক্তি সই হয়েছে

বলে জানা গেছে। দেশটির বিরোধী দলগুলো এ ঘটনায় ইমরান খান সরকারের সমালোচনা করছে। এশিয়া টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ঋণের এই অর্থ আগামী ৩ বছরের জন্য পাকিস্তান সরকার পরিশোধিত পেট্রোলিয়াম পণ্য, অপরিশোধিত

তেল, তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) এবং শিল্প রাসায়নিক ইউরিয়া কেনার জন্য ব্যবহার করবে। জেদ্দাভিত্তিক আইডিবির ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ট্রেড ফাইন্যান্স কর্পোরেশন (আইটিএফসি) পাকিস্তানকে এই ঋণ দেবে।

জানা যায়, পাকিস্তানের ঝিলম ও সিন্ধু নদীর মাংলা এবং তারবেলা জলবিদ্যুৎ বাঁধে পানি প্রবাহ কমে গেছে। ফলে দেশটিতে বিদ্যুৎ উৎপাদন ব্যাপকভাবে ব্যাহত হচ্ছে। এ ছাড়া রয়েছে জ্বালানি ঘাটতি। জলাধার থেকে প্রায় ৭ হাজার ৩২০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ

উৎপাদন করে পাকিস্তান। এশিয়া টাইমস তাদের প্রতিবেদনে আরো জানিয়েছে, বিদ্যুৎ উৎপাদন পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় গত সপ্তাহে পাকিস্তান সরকার প্রদেশগুলিতে পানি বণ্টন ১০ শতাংশ কমিয়ে দিয়েছে। পরিস্থিতির যদি উন্নতি না হয় তাহলে আরো কাটছাঁট করার পরিকল্পনা রয়েছে। এ ছাড়া পাক সরকর রপ্তানি

বহির্ভূত শিল্প ইউনিট এবং সংকুচিত প্রাকৃতিক গ্যাস (সিএনজি) স্টেশনগুলিতে গ্যাস সরবরাহ স্থগিত করেছে, যাতে গ্যাসের অভ্যন্তরীণ চাহিদা পূরণ করা যায়। এদিকে, ইমরান খান সরকারের এই ঋণ নেওয়ার ঘটনায় বিরোধী দলগুলো নানা সমালোচনা করছে। তারা প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের নেতৃত্বাধীন পিটিআই

সরকারের বিরুদ্ধে অলসতা ও অব্যবস্থাপনার অভিযোগ তুলেছে। জ্বালানি সংকটের জন্য ইমরান খান সরকারকে সরাসরি দায়ী করেছেন পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) নেতা এবং সাবেক অর্থমন্ত্রী মিফতাহ ইসমাইল।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close