আন্তর্জাতিক

টুইন টাওয়ারে হামলার পরে এমন ভয়ংকর অবস্থা যুক্তরাষ্ট্রে কখনো হয়নি

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের মায়ামির সার্ফসাইড এলাকায় ১২তলা একটি ভবনে ধসে একজনের মৃত্যু হয়েছে। উদ্ধারকর্মীরা ৩৫ জনকে উদ্ধার করেছেন।

এদের মধ্যে ১১ জন গুরুতর আহত। উদ্ধার কাজে প্রশিক্ষিত কুকুর এবং ড্রোন ব্যবহার করা হচ্ছে।বৃহস্পতিবার ধসে যাওয়া ভবনের ধ্বংসস্তূপের নিচে এখনও শতাধিক লোক আটকা পড়েছেন বলে ধারণা উদ্ধারকর্মীদের।

পুলিশ বলেছে, ওই ভবনটি নির্মাণ করা হয়েছিল ১৯৮০ সালে। এতে ১৩০টি ইউনিট ছিল। এই ধসের কারণে অর্ধেক ইউনিট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সার্ফসাইডের অগ্নিনির্বাপণ বিভাগের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ৩৫ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের বিভিন্ন হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

আরো ও সংবাদ পড়ুন
রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আজ (শুক্রবার) প্রাতঃভ্রমণ ও শরীরচর্চা শেষে বিশ্রাম নিচ্ছিলেন বিভিন্ন বয়সী কয়েকজন ব্যক্তি। তাদের কেউ শিক্ষার্থী, ব্যবসায়ী, চাকরিজীবী, আমলা ও ব্যাংকার। এ সময় বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলছিলেন তারা। তবে কথাবার্তার মূল বিষয়—করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে

সারাদেশে শাটডাউনের সুপারিশ। এটা কী, কিভাবে, কবে থেকে শুরু হবে, লকডাউন আর শাটডাউনের মধ্যে পার্থক্য কী এবং ঈদের আগে শুরু হলে কোরবানির পশু কীভাবে বেচাকেনা হবে—এসব নিয়ে তাদের মধ্যে কথা হচ্ছিল। এ সময় পুরান ঢাকার বাসিন্দা আলমাস হোসেন বলেন, ‘শাটডাউন কীভাবে বাস্তবায়ন হবে সে সম্পর্কে সুস্পষ্ট ব্যাখ্যা দেয়া প্রয়োজন। আল্লাহ জানেন,

সামনের দিনগুলোতে কপালে কী আছে!’ বিভিন্ন স্থানে দিনমজুর থেকে শুরু করে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের মধ্যে শাটডাউন নিয়ে আলোচনা চলছে। এটা এখন ‘টক অব দ্য কান্ট্রি’। লকডাউন শব্দটি এবং এর প্রয়োগ সম্পর্কে ধারণা থাকলেও শাটডাউন সম্পর্কে কারো ধারণা না থাকায় এত আলোচনা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close