মানবাতা ও সমাজ

অসহায়,ত্বের কথা জানাতেই সবজি বিক্রে,তাকে ভ্যান কিনে দিলেন ওসি

মহা,মারি করোনার এই ক্রা,ন্তিকালে নিম্ন,আয়ের মানুষেরা ক,রুণ জী,বনযাপন করছেন। তাদের অনে,কেরই উপা,র্জনের পথ বন্ধ হয়ে গেছে। করোনার দ্বি,তীয় ঢেউ মোকা,বিলায় সরকার এক স,প্তাহ লকডা,উন ঘোষণা করেছে।

এই যখন অবস্থা তখন গাজী,পুর মহা,নগরীর ভোগড়া এলাকার অসহায় এক সবজি বিক্রে,তার পাশে দাঁড়া,লেন এক পু,লিশ কর্মক,র্তা। তিনি ওই সবজি বিক্রে,তাকে একটি ভ্যান কিনে দিয়েছেন। মঙ্গ,লবার (১৩ এপ্রিল) দুপু,রে তার কাছে ভ্যা,নটি

হস্তা,ন্তর করেন বাসন থানার ভার,প্রাপ্ত কর্ম,কর্তা (ওসি) মো. কামরুল ফা,রুক। ভ্যা,নটি পেয়ে খুবই খুশি হয়েছেন সবজি বি,ক্রেতা মো. সাই,ফুল ইসলাম (৩৭)। সবজি বি,ক্রেতা সাই,ফুল ইসলাম জানান, গাজী,পুর মহান,গরের ১৫ নম্বর ওয়া,র্ডের ভোগড়া মধ্য,পাড়া এলাকার নায়েব বা,ড়িতে থেকে তিনি এলাকায় সবজি বিক্রি করেন। পাঁচ সদ,স্যের পরিবারে তিনি একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি। তিনি

অতিক,ষ্টে খেয়ে না খেয়ে ধারদেনা করে সম্প্র,তি কিস্তি,তে একটি পুরা,তন ভ্যান কেনেন। সারাদিন সবজি বিক্রি করে যে আয় হয় তা থেকে তিনি কোনো রকমে সংসার খরচ মেটান এবং ভ্যা,নের কিস্তি,র টাকা শোধ করতেন। এতে কো,নোমতে চলে যাচ্ছি,ল তার সংসার। একমাস আগে তার ভ্যা,নটি বাসার পাশ থেকে খোয়া যায়। এতে করো,নাকালে তিনি অনেক,টাই কর্ম,হীন

হয়ে চরম হতাশার মধ্যে পড়েন। ধারদেনা করে সংসার চালাতে থাকেন। বিষ,য়টি তিনি বাসন থানার ওসির কাছে জানালে তিনি মঙ্গল,বার একটি ভ্যা,নের ব্যব,স্থা করে দেন। ভ্যানটি পেয়ে তিনি খুশি হয়ে,ছেন। ওসির এমন মানবিক দৃষ্টান্ত দেখে মুগ্ধ সাইফুল বলেন, ‘সব পুলিশ এক নন। পুলিশে এখনও ভালো ও সৎ

কর্মক,র্তা রয়েছেন।’ এ বিষয়ে বাসন থানার ওসি মো. কামরুল ফারু,ক বলেন, পরিবা,রের অবস্থা দেখে এবং মানবিক দিক বিবে,চনায় সাইফুল ইসলা,মকে একটি ভ্যান কিনে দিয়েছি। এতে করোনা,কালে তার সংসার চালা,নো কিছুটা সহজ হবে আশা করি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close